গোলাম সরোয়ারের মানসপুত্রদের কান্না

হেফাজত এ ভট্টাচার্যের মতে জামাত বিরোধীতা, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার এগুলো সব ‘ইসলাম কুপানো’! এই ‘ইসলাম কুপানোর’ কাজগুলো করেছে প্রগতিশীলরা ইসলামের বিরুদ্ধে তাদের প্রতিহিংসার কারণে। এই প্রতিহিংসা আসছে মুসলমান কৃষকের কাছে জমিদারী হারানোর বেদনা থেকে। ‘রাজাকারের প্রতিচ্ছবির গায়ে ইসলামী পোষাক’ অর্থ্যাত হেফাজত এ ভট্টাচার্য বলছে রাজাকার আল বদরদের পোশাক আশাক যেভাবে দেখানো হয় তাতে ইসলামের অবমাননা হয়।

নোয়াখালী দা্ঙ্গার মাস্টার মাইন্ড গোলাম সরোয়ারের যদি একটি পুত্র সন্তান থাকত তাহলে এভাবেই তার হয়ে কথা বলত আজকে। কারণ শ্যামপুর দায়রা শরীফের পীর সাহেব গোলাম সরোয়ার জমিদার রাজেন্দ্রলাল চৌধুরীর বিরুদ্ধে কৃষকদের নিয়ে আন্দোলন করেছিলেন। গোলাম সরোয়ার ছিলেন নোয়াখালী কৃষক সমিতির অত্যন্ত প্রভাবশালী নেতা। কৃষকের খাজনা মওকুফ, ঋণ সালিশি বোর্ড থেকে সুদখোর ব্যবসায়ীদের উৎখাত করা এবং জমিদারি বাজার বয়কট করার আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়ে তিনি জমিদারদের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছিলেন। সেই আন্দোলন সংগ্রাম জিহাদ যেটাই বলেন তার ফলশ্রুতিতে শত শত হিন্দু নারীদের ধর্ষণ, হিন্দু নারী-পুরুষদের জোর করে ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তরিত, ধর্মান্তরিত করে ভিকটিমদের কাছ থেকে লিখিয়ে নেয়া হয়েছিল যে তারা স্বেচ্ছায় ইসলাম গ্রহণ করেছিলেন। ধারণা করা হয় ৫০০০ হাজার হিন্দুকে সেদিন কটুকাটা করা হয়। জমিদার রাজেন্দ্রলাল চৌধুরীর মাথা কেটে নেয় সরোয়ার বাহিনী। পাশ্ববর্তী রায়পুরের চিত্তরঞ্জন চৌধুরীর বাড়িতেও একইভাবে হামলা ও হত্যাকান্ড ঘটে। এই হচ্ছে জমিদারী হারানোর পূর্ববঙ্গের কাহিনী। এখানে ইসলামকে কুপানো হয়েছিলো নাকি ইসলাম কুপিয়েছিলো? এত বড় কুকর্ম করার পরও আজো শ্যামপুর দায়রা শরীফের পীরের দরগায় ভক্ত আশেকানদের ভীড় হয়। ভিটে মাটি ফেলে যেসব হিন্দুরা ভারত চলে গিয়েছিলো তারাই ১৯৭১ খ্রিস্টাব্দের মুক্তিযুদ্ধে বুক দিয়ে পূর্ববঙ্গকে আগলে রেখেছিলো। তাহলে জমিদারী হারানোর জ্বালায় ইসলাম কুপানোর তত্ত্ব কোথা থেকে আসল?

কমিউনিস্টরা নাকি ইসলাম বিদ্বেষ ফেরি করে! অদ্ভূত দাবী! কমিউনিস্টদের শত্রুরাও তাদের বিরুদ্ধে এই দাবী করে না। হেফাজত এ ভট্টাচার্যকে নাকি ফ্রান্সে এসাইলাম নিতে বাধ্য করছে কমিউনিস্টরা। তারাই নাকি তাকে দেশ ছাড়া করতে গোপনে কাজ করেছে। কমিউনিস্টদের প্রতি তার মতামত নিয়ে আমার কথা নাই। তবে তাকে হেফাজত, জামাত মায় ইসলামী আদর্শে বামপন্থা খাড়া করতে, ফরহাদ মজহারের তাত্ত্বিক রাজনীতিতে আস্থা রাখতে হলে অবশ্যই গোলাম সরোয়ারের পা ধরেই এগুতে হবে। তিতুমীর, গোলাম সরোয়ার তাদের কৃষক নিয়ে জমিদারদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম একই আদর্শগত দিক থেকে। গোলাম সরোয়ারের মাথায় টুপি দাড়ি কপালে নামাজের দাগওয়ালা চেহারা সুরত নিয়ে কেউ সিনেমা বানায়নি। বানালে অবধারিতভাবে ইসলামী পোশাক এসে যেতো। আল বদর, রাজাকাররা জামাত, মুসলিম লীগ, নেজামে ইসলাম পার্টি থেকে জন্ম নিয়েছিলো। তাদের ইসলামী পোশাক দেখালে সেটা ইসলাম কুপানোই হবে এটা ঠিক। কারণ পূর্ববঙ্গের ইতিহাস ‘ইসলাম ও মুসলমান’ এই দুটি অবস্থান থেকেই ভূরাজনৈতিক পরিবর্তন বার বার ঘটেছিলো। বখতিয়ার খিলজিকে নায়ক কাফের অপশাসন থেকে মুক্তির দুত দেখালে প্রতিপক্ষ হিসেবে হিন্দু রাজা লক্ষণ সেন চলে আসবে!

শেরে বাংলা, ভাষানীদের এই অঞ্চলের মুসলমানদের অধিকার আদায়ের চূড়ান্ত রূপ ছিলো ‘পাকিস্তান’। তাহলে গোলাম সরোয়ারকে তার মানসপুত্ররা কি করে ভিলেন হিসেবে দেখাবে? কি করে মুসলমানদের তমুদ্দিন লেবাস ঐতিহ্যময় পোশাককে খল হিসেবে দেখাবে? আমি তো বাংলাদেশের ভবিষ্যত দেখতে পাই যেখানে অদূর ভবিষ্যতে মুক্তিযুদ্ধের বিরোধীতাকারীদের ইসলামী পোশাকে না দেখানোর সেন্সরশীপ আসবে। হয়ত সেটা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষ কোন শক্তির কাছ থেকেই। গোলাম সরোয়ার তাই এদেশে অজানা অচেনা একটি নাম। এই কসাইকে কতজন সাধারণ মানুষ জানে? কারণ তাকে চেনাতে হলে ‘ইসলাম কুপানো’ই লাগে আক্ষরিক অর্থে। জাকির তালুকদার নামের বাংলাদেশের একজন লেখক আমার লেখার প্রতিক্রিয়া লিখেছিলো, মুসলমান কৃষকের পাট বেচা টাকায় মুসলমানরা কেন হিন্দু দেবদেবীর কাহিনী পাঠ্যবইয়ে পড়তে যাবে। এসব কারণেই দেশভাগ ঘটেছিলো। বেশ তো, এবার দেখান গোলাম সারোয়ারকে আপনাদের অবস্থান থেকে কিভাবে দেখাবেন? এই কারণেই অত্যাচারি হিন্দু জমিদারের হাতে গরীর মুসলমান কৃষকের কথা থাকলেও কমিউনিস্ট আওয়ামী ডান বাম সব মহলেই গোলাম সরোয়ার অদৃশ্য। কারণ তাতে ইসলাম কুপানোই হয়ে যাবে যে…।
#সুষুপ্ত_পাঠক

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ফেসবুক পেজ

সাবস্ক্রাইব করুন

শেয়ার করুন

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email
Share on google
Google+
Share on linkedin
LinkedIn
Share on pinterest
Pinterest
Share on reddit
Reddit
Share on tumblr
Tumblr
Share on telegram
Telegram
Share on pocket
Pocket
Share on skype
Skype
Share on xing
XING
Share on stumbleupon
StumbleUpon
Share on mix
Mix